OployeeLabs

16484 (Everyday 8AM - 10PM)

Questions & AnswersDownload brochure

১। ক্যান্সার কেয়ার পলিসিটি কি ও কাদের জন্য প্রযোজ্য?
উত্তর: এটি জীবন বীমা সুবিধা সহ একটি বিশেষ স্বাস্থ্য বীমা পলিসি যেটি শুধু মাত্র ক্যান্সার চিকিৎসা খরচ বহন করে থাকে। যে কোন স্বাস্থ্যের অধিকারী/ অধিকারীনী বাংলাদেশী নাগরিক, যাদের বয়স সীমা ১৮ থেকে ৬০ এর মধ্যে তারা এই পলিসিটি কিনতে পারবেন।
২। আমি কিভাবে ক্যান্সার এর কেয়ার সদস্য হতে পারি/ কিভাবে ক্যান্সার কেয়ার প্রোডাক্টটি কিনতে পারি?
উত্তরঃ ক্যান্সার কেয়ার সদস্য হওয়ার জন্য প্রথমে আপনাকে ডক্টরোলার সদস্য হতে হবে। এজন্য আপনি ১৬৪৮৪ নাম্বারে ফোন দিয়ে বিস্তারিত জেনে নিতে পারেন। এছাড়া ডক্টরোলার ওয়েবসাইট এ ভিজিট করেও আপনি আপনার যাবতিও তথ্য জানাতে পারবেন।
৩। আমাকে কত টাকার জন্য কত টাকা প্রিমিয়াম দিতে হবে মাসে/ বছরে?
উত্তরঃ এটি র্নিধারিত হবে আপনার বয়স এবং বীমাকৃত অংকের ভিত্তিতে।
৪। যে কেউ কি এই পলিসিটি কিনতে পারবে?
উত্তরঃ যে কোনো সুস্বাস্থ্যের অধিকারী / অধিকারীনী বাংলাদেশী নাগরিক, যাদের বয়স সীমা ১৮ থেকে ৬০ এর মধ্যে, তারা প্রত্যেকে এই পলিসিটি আলাদা আলাদা ভাবে কিনতে পারবেন।
৫। কি কি ধরনের ক্যান্সারের জন্য আমি ক্লেইম করতে পারবো ?
উত্তরঃ স্কিন ক্যানসার ছাড়া সকল প্রকার ক্যানসারের ক্ষেত্রে আপনি ক্লেইম করতে পারবেন।
৬। যে কোন একটি পলিসি নিলেই কি একটি পরিবারের সকল সদস্য তাঁর আওতায় চলে আসবে?
উত্তরঃ না। এই পলিসিটি প্রত্যেক ব্যক্তির আলাদা আলাদা ভাবে কিনতে হবে।
৭। এই পলিসিটি নেওয়ার সময় আমাকে কি কি ডকুমেন্টস দিতে হবে?
উত্তরঃ এই পলিসি নেওয়ার সময় আপনাকে নিম্নে উল্লেখিত ডকুমেন্টস গুলি দিতে হবে – ক ) পুরণকৃত প্রস্তাব পত্র। খ) পুরণকৃত "সুস্বাস্থ্য ঘোষণা পত্র" । গ) এন আই ডি/ ড্রাইভিং লাইসেন্স/ পাসপোর্ট এর ফটো কপি। ঘ) পাসপোর্ট সাইজ এর ফটো। ঙ) নমিনির তথ্য। চ) বিশেষ ক্ষেত্রে মেডিক্যাল সার্টিফিকেট।
৮। ক্যান্সারের প্রাইমারী অবস্থায় কি আমি এই পলিসি গ্রহন করতে পারব? যদি পারি তাহলে আমাকে কিভাবে আইডেন্টিফায় করা হবে ?
উত্তরঃ না। ক্যান্সারের প্রাইমারী অবস্থায় আপনি এই পলিসি গ্রহন করতে পারবেন না।
৯। একজন পেশেন্ট যদি না জানে তাঁর শরীরে ক্যান্সারের জীবাণু আছে, কিন্ত যে এই পলিসি কেনার পরে জানতে পারলে তাহলে কি সে এই পলিসি সুবিধা পাবে? যদি পায় বা না পায় তাহলে কিভাবে তা নির্ধারণ করা হবে ?
উত্তরঃ এই পলিসি কেনার ৯০ দিনের মাঝে শরীরে ক্যান্সারের জীবাণু ধরা পরলে আপনি এই পলিসি সুবিধা পাবেন না। কিন্তু পলিসিটি কেনার ৯০ দিন পার হবার পর আপনি এই পলিসির সুবিধা পাবেন।
১০। দেশে বা দেশের বাইরে কি ধরনের হাসপাতাল গুলোতে ক্যাশলেস সুবিধা দেওয়া হবে ?
উত্তরঃ দেশে বা দেশের বাইরে আমাদের নেটওয়ার্ক হসপিটাল গুলোতে ক্যাশলেস সুবিধা দেওয়া হবে।
১১। ক্যান্সার আইডেন্টিফাই হওয়ার কতদিনের মধ্যে টাকা বুঝিয়ে দেওয়া হবে ?
উত্তরঃ ক্যাশলেস হসপিটালাজেশনের ক্ষেত্রে আপনি সরাসরি কোন টাকা পাবেন না। তবে আপনি যদি ব্যক্তিগত ভাবে চিকিৎসা করেন এবং প্রয়োজনীয়ও কাগজপত্র সহ ক্লেইম বিল সাবমিট করেন তাহলে বীমা অংকের উপর ভিত্তি করে আপনি আপনার টাকা ৩০ কর্ম দিবসের মধ্যে বুঝে পাবেন। কিন্তু সেক্ষেত্রে পলিসি বহির্ভুত কোন খরচ প্রদান করা হবে না।
১২। আমি কি সুস্থ্য বা অসুস্থ্য যে কোনো অবস্থায় এই পলিসি মেয়াদ বাড়াতে পারব ?
উত্তরঃ শুধুমাত্র সুস্থ্য অবস্থায় পলিসির মেয়াদ বাড়ানো যাবে।
১৩। হাসপাতালের বিল কিভাবে এই ক্যান্সার কেয়ার প্রোডাক্ট পরিশোধ করবে এবং করলে কত টাকা ? আমাকে বিস্তারিত বুঝিয়ে বলুন।
উত্তরঃ ক্যাশলেস হসপিটালাজেশনের ক্ষেত্রে প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিঃ আপনার চিকিৎসা খরচ হাসপাতালে সরাসরি প্রদান করবে। এবং এটির সর্বোচ্চ পরিমাণ হবে আপনার বীমা অংকের সমপরিমাণ।
১৪। এই পলিসিটি কাভারেজ কত দিন?
উত্তরঃ এই পলিসিটি ১, ৩ ও ৫ বছর মেয়াদী।
১৫। কোন কোন ক্ষেত্রে আমি এই পলিসির কাভারেজ পাবো ? এই পলিসি আমার চিকিৎসার কোন কোন খরচ বহন করবে ?
উত্তরঃ এই পলিসি নিন্মে উল্লেখিত কাভারেজ বহন করবে- ক) বেড/ রুম ভাড়া। খ) ডাক্তারের পরামর্শ ফি। গ) ঔষধ খরচ। ঘ) অপারেশন খরচ। ঙ) চিকিৎসা সরঞ্জামাদি। চ) বিমান ভাড়া ( শুধু মাত্র ভারত ও থাইল্যান্ডের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।)
১৬। এই পলিসি এর কাভারেজ লিমিট কত ?
উত্তরঃ এই পলিসির কাভারেজের লিমিট ৫ লক্ষ টাকা হতে ২০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।
১৭। এই পলিসি টি নেয়ার জন্য কোন বয়স সীমা আছে কী ?
উত্তরঃ পলিসি শুরুর ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বয়স হবে ১৮ বছর এবং সর্বোচ্চ ৬০ বছর। মেয়াদ পুর্তির সর্বোচ্চ বয়স সীমা ৬৫ বছর।
১৮। আমি বাংলাদেশের বাইরে চিকিৎসা করাতে গেলেও কি আমি এই কাভারেজ পাবো ?
উত্তরঃ হ্যাঁ। বাংলাদেশের বাইরে ভারত ও থাইল্যান্ড অবস্থিত সকল নেটওয়ার্ক হসপিটালে চিকিৎসার ক্ষেত্রে এই কাভারেজ প্রযোজ্য হবে। নেটওয়ার্ক হসপিটালের বাইরে চিকিৎসার ক্ষেত্রে কো-ইনসিওরেন্স প্রযোজ্য হবে।
১৯। ক্যাশ সাপোর্ট ছাড়াও আর কি কি সুবিধা আমি পাচ্ছি ?
উত্তরঃ ক্যাশ সার্পোট ছাড়াও আপনি পাচ্ছেন – ক) নো-ক্লেইম বোনাস সুবিধা। খ) ক্যান্সার প্রতিরোধে স্বাস্থ্য টিপস।
২০। কোন কোন কারণে আমার এই কাভারেজ বাতিল হয়ে যেতে পারে ?
উত্তরঃ আপনি যদি কোন ভুল তথ্য প্রদান করেন বা কোন তথ্য গোপন করেন তাহলে আপনার এই বীমা কাভারেজ বাতিল হয়ে যেতে পারে।
২১। আমি কি আমার পছন্দ মত হাসপাতালে এই কাভারেজ পাবো ?
উত্তরঃ হ্যাঁ। সেক্ষেত্রে আামাদের নেটওয়ার্ক হসপিটাল ছাড়া অন্য কোন হসপিটালে চিকিৎসা করলে ক্যাশলেস হসপিটালাজেশনের সুবিধা পাওয়া যাবে না। তবে নেটওয়ার্ক হসপিটালের বাইরে চিকিৎসার ক্ষেত্রে কো-ইনসিওরেন্সে প্রযোজ্য হবে ।
২২। কোন কোন হসপিটাল আপনাদের এই কাভারেজ এর আওতায় পড়ে ?
উত্তরঃ ক্যাশলেস হসপিটালাজেশনের শুধুমাত্র বাংলাদেশ, ভারত, থাইল্যান্ডে অবস্থিত সকল নেটওয়ার্ক হসপিটালের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। এছাড়া অন্য সকল হসপিটালের জন্য জি কিউ সুবিধা পাবেন। এক্ষেত্রে রি-ইমবার্সমেন্ট বিল প্রযোজ্য হবে।
২৩। প্রিমিয়াম এর টাকা পরিশোধ কালীন সময়ে যদি রোগী মারা যান, সেক্ষেত্রে করনীও কি ?
উত্তরঃ প্রিমিয়াম এর টাকা পরিশোধ কালীন সময়ে যদি রোগী মারা যান, সেক্ষেত্রে নমিনি প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র জমা দিয়ে টার্ম লাইফ এর সুবিধা গ্রহন করতে পারবেন।
২৪। মেয়াদ শেষ হলে এটা কি আমি রিনিউ করতে পারব ?
উত্তরঃ হ্যাঁ। আপনি সুস্থ থাকলে মেয়াদ শেষের পর এটা আপনি রিনিউ করতে পারবেন।
২৫। কো-ইনসিওরেন্স কি ?
উত্তরঃ আপনি আপনার চিকিৎসা খরচের ১০% বহন করবেন এবং খরচের বাকি ৯০% প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিঃ বহন করবে।